সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন

ইউরোপে উচ্চ শিক্ষা নিয়ে অনেকের মনে বিভিন্ন প্রকার প্রশ্ন থেকে থাকে। এইসকল প্রশ্নের যথাযথ উত্তর অনেকে জানতে পারে না। এই আর্টিকেলে ইউরোপীয় উচ্চশিক্ষা নিয়ে আপনার মনের যত প্রকার প্রশ্ন রয়েছে এর উত্তর এখানে পাবেন। সুবিন্দু অ্যাডভাইসরের কাছে আজ অব্দি যারা যা কিছু জানতে চেয়েছেন তাঁর বেস্ট প্রশ্ন এবং উত্তর গুলি এখানে গুছিয়ে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই প্রশ্ন গুলি সুবিন্দু অ্যাডভাইসরের নিজ থেকে বানানো নয় আপনাদের করা প্রশ্ন গুলি এখানে উপস্থাপন করা হয়েছে। 

1. সুবিন্দু অ্যাডভাইসরের অফিস কোথায়?

আমাদের কোথাও কোন প্রকার অফিস নেই। অফিস ছাড়াই উচ্চ শিক্ষার পরামর্শকের দায়িত্ব পালন করছি। এই কাজের জন্য আলাদা অফিস নিতে হবে এই মতবাদে আমরা বিশ্বাসী নই। কাজের প্রতি দায়িত্বজ্ঞান এবং সততা থাকলে অফিস ছাড়াই এই ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করা যায়।

2. সুবিন্দু কোন কোন দেশ নিয়ে কাজ করছে?

সুবিন্দু অ্যাডভাইসর বর্তমানে চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, এস্তোনিয়া নিয়ে কাজ করছে।

3. চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, এস্তোনিয়া দেশগুলি কি সেঞ্জেন?

জি সেঞ্জেন।

4. ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদনের জন্য কি একাডেমিক কাগজপত্র সত্যায়ন বাধ্যতামূলক?

এই বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর নির্ভর করে। আবেদনের পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয় কে জিজ্ঞেস করে নিন। যদি বিশ্ববিদ্যালয় বলে সত্যায়ন বাধ্যতামূলক সেক্ষেত্রে সত্যায়ন করতে হবে।

5. আমার ব্যাচেলর ট্রান্সক্রিপ্ট ২ পৃষ্ঠার। মূল কপি সত্যায়ন কি ২ পৃষ্ঠায় করতে হবে? নাকি শুধুমাত্র শেষ পৃষ্ঠায় করলেই চলবে?

অবশ্যই ২ পাতায় করতে হবে। পাতা যদি ৪ টি হয় তখনও ৪ পাতায় সত্যায়ন করতে হবে।

6. মেডিকেল রিপোর্ট কি কোথাও হতে ভেরিফাই করানো লাগবে? যেমন সিভিল সার্জন?

স্টুডেন্ট ভিসা আবেদনের জন্য মেডিক্যাল রিপোর্টের প্রয়োজন নেই।

7. পুলিশ ক্লিয়ারেন্স যেহেতু পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হতে ইস্যু হয়ে থাকে, সুতরাং ফারদার কোন প্রকার সত্যায়নের প্রয়োজন আছে কি?

নেই। শুধুমাত্র পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক সত্যায়ন যথেষ্ট।

8. ভর্তি আবেদনের জন্য রিকমেন্ডেশন লেটারের অরিজিনাল কপি বাই পোস্টে পাঠাতে হয়?

শিক্ষক যদি আপনাকে একসাথে ৪-৫ কপি রিকমেন্ডেশন লেটার দিয়ে দেয় তাহলে অরিজিনাল কপি পাঠাবেন। যদি ১ কপির বেশি না দেয় সেক্ষেত্রে অবশ্যই অরিজিনাল কপি থেকে কালার প্রিন্ট করে ডুপ্লিকেট কপি বের করুন। এই ধরনের ডুপ্লিকেট কপি দিয়ে আপনি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদন করতে পারবেন। মনে রাখবেন রিকমেন্ডেশন লেটারের মেয়াদকাল ৩ মাস থাকে।

9. ইংলিশ মিডিয়াম অব ইন্সট্রাকশন সার্টিফিকেট কে ইস্যু করবে?

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় হলে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হলে রেজিস্টার কর্তৃক ইস্যু করা হয়।

10. আমারা বাব/মা/ভাই-বোন ব্যাংক স্পন্সর হতে পারবে না এমতাবস্থায় আমার চাচা/মামা আমার আমাকে স্পন্সর করতে পারবে?

জি পারবে। যদি আপনার চাচা/মামা আপনার স্পন্সর হয় তাহলে তাঁর ব্যাংক হিসাব থেকে আপনার বেক্তিগত ব্যাংক হিসাবে টাকা ট্রান্সফার করতে হবে। এই টাকা আপনার বেক্তিগত ব্যাংক হিসাবে ভিসা আবেদনের ফলাফল পাবার আগ পর্যন্ত থাকতে হবে।

11. ভিসা আবেদনের জন্য নূন্যতম কত দিনের একোমোডেশন রিজারভেশন নিতে হবে?

নূন্যতম ৩৬৫ দিন বা ১ বছরের জন্য একোমোডেসান কনফার্ম করতে হবে। চেক প্রজাতন্ত্রের ক্ষেত্রে অরিজিনাল একোমোডেসান সার্টিফিকেট দূতাবাসে জমা দিতে হবে তবে স্লোভাকিয়া,স্লোভেনিয়া, এস্তোনিয়া দূতাবাসে ইমেইল স্ক্যান কপি জমা দিলেই হবে।

12. ভিসা আবেদনের জন্য কি আমার সকল একাডেমিক কাগজপত্র সত্যায়ন করাতে হবে?

ভিসা আবেদনের জন্য একাডেমিক কাগজপত্র সত্যায়নের শর্ত দূতাবাসের নেই। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়। দূতাবাস বড়জোর আপনার কাছ থেকে মূল একাডেকি কাগজপত্র দেখতে চাইতে পারে।

13. আইইএলটিএস ছাড়া আমি কি ভর্তি আবেদন করতে পারব?

অবশ্যই পারবেন। চেক প্রজাতন্ত্র এবং স্লোভাকিয়ায় পারবেন। তবে চেক প্রজাতন্ত্র এবং স্লোভাকিয়ার সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে পারবেন না কিছু বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যারা আইইএলটিএস ছাড়া ভর্তি কনফার্ম করে।

নোটঃ স্লোভেনিয়া এবং এস্তোনিয়ায় আইইএলটিএস ছাড়া ভর্তি হতে পারবেন না।

13. মাদ্রাসা শিক্ষার্থী কি ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে পারবে?

জি পারবে।

14. ভিসা হবার প্রসিভিলিটি কেমন অথবা ভিসা এক্সেপ্টেন্স রেশিও কেমন?

ভিসা পবার সম্ভাবনা সম্পূর্ণ আপনার ইন্টার্ভিউ এবং জমা কৃত কাগজপত্রের সত্যতার উপর নির্ভর করবে। যদি আপনি ইংরেজী ভালভাবে কথা বলতে পারেন তাহলে ভিসা পাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

15. কত বছরের স্টাডি গ্যাপ গ্রহণযোগ্য?

স্টাডি গ্যাপ বিষয়টি মূলত এইচএসসি পাশ কৃত শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। ব্যাচেলর সম্পন্নের পর স্টাডি গ্যাপ কোন বিষয় নয়। ইউরোপীয় এমন অনেক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যারা এইচ এস সি ডিগ্রী সম্পন্ন শিক্ষার্থীর ৫ বছরের স্টাডি গ্যাপ গ্রহণ করে ভর্তির সুযোগ দেয় কিন্তু দূতাবাস অনেক সময় বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে, এটা কখনোই বলা যায় না এইচ এস সি ডিগ্রী সম্পন্ন শিক্ষার্থীর বেলায় স্টাডি গ্যাপ কোন বাঁধা সৃষ্টি করে না। কখনো কখনো এদের ভিসা হয় কখনো কখনো হয় না।

অপরদিকে ব্যাচেলর ডিগ্রী সম্পন্ন শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে ৫ বছর স্টাডি গ্যাপ কোন প্রকার বাধার সৃষ্টি করে না কারন মাস্টার ডীগ্রি একটি প্রফেশনাল ডিগ্রী এবং আপনাকে বলতে হবে ব্যাচেলর পাশ করার পর আজ অব্দি আপনি কোথায় চাকুরিরত বা ব্যবসায় নিয়জিত রয়েছেন। যারা এর কিছুই করেন নাই তাঁদেরকেও কিছু একটা বলতে হবে।

16. আমি মালয়েশিয়া/সিঙ্গাপুর/কাতার/ব্রুনাই/সোদি আবার/আরব আমিরাত অথবা ইউরোপীয় দেশে থাকি, আমি কি এখান থেকে এখানকার চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়া দূতাবাসে আবেদন করতে পারব?

অবশ্যই পারবেন। আবেদনের পূর্বে আপনার বাংলাদেশি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট নিউ দিল্লির স্ব স্ব দূতাবাস থেকে সুপার লিগেলাইজ করাতে হবে। যে দেশে বর্তমানে বসবাস করছেন সে দেশের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স লাগবে এবং এটা সে দেশের পররাস্ট মন্ত্রণালয় থেকে সত্যায়ন করতে হবে এর সাথে সুপ্রিম কোর্ট থেকে এপোস্টাইল করিয়ে নিতে হবে। পর্যাপ্ত অর্থ উৎস দেখানোর জন্য বর্তমানে যে দেশে বসবাস করছেন সে দেশের স্থানীয় ব্যাংক হিসাবে আপনার নামে ৭০০০ ইউরো দেখাতে হবে। সর্বশেষ আপনার বর্তমানে যে দেশে বসবাস করছেন সে দেশের নূন্যতম ৬ মাসের ভিসা থাকতে হবে।

17. ভাই ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদন এবং ভিসা আবেদন সহ টোটাল প্রসেস টা কিভাবে যদি বলতেন?

  • প্রথমে আপনাকে নির্বাচন করতে হবে কোন বিষয় নিয়ে আপনি পড়াশোনা করতে চান এর পর ইউরোপীয় দেশ গুলির বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে রিসার্চ করুন এবং বের করার চেস্টা করুন আপনি যে বিষয়ে পড়াশোনা করতে চান এর জন্য কোন বিশ্ববিদ্যালয় টি ভাল হবে।
  • বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচনের পর ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য যোগ্যতা অনুযায়ী আপনার সকল কাগজপত্র প্রস্তুত করুন।
  • এবার নির্দিষ্ট সময়ে ভর্তি আবেদন করুন। আমি সাজেস্ট করব কম করেও ৩-৪ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করুন।
  • ভর্তি অনুমোদন পাবার পর ঐ দেশের দূতাবাসের সকল নিয়ম কানুন জানুন এবং সে অনুযায়ী ভিসা আবেদনের কাগজপত্র প্রস্তুত করুন।
  • দূতাবাসে এপয়েন্টমেন্ট নেওয়ার পদ্ধতি থাকলে এপয়েন্টমেন্ট নিয়ে নিন।
  • এপয়েন্টমেন্টের দিন আপনার ভিসা আবেদন সংক্রান্ত সকল কাগজপত্র দূতাবাসে জমা দিন এবং ভাল একটি ইন্টার্ভিউ দেবার চেস্টা করুন।
  • ভিসা আবেদনের পর দেশে চলে আসুন ১-১.৩ মাস পর দুতাবসা আপনার ভিসা আবেদনের ফলাফল জানিয়ে দিবে।
  • ফলাফল ইতিবাচক হলে ভিসা নিয়ে আসুন এবং ২ সপ্তাহের ভিতরে ফ্লাই করুন।

18. বছরের কোন কোন সময় ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়?

সাধারণত বছরে ২ বার ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয় প্রথমটি জানুয়ারি থেকে এপ্রিল এবং দ্বিতীয়টি অক্টোবর থেক ডিসেম্বর।

19. ছাত্র অবস্থায় কি খন্ডকালি চাকুরি করা যাবে?

ছাত্র অবস্থায় আপনি প্রতি সপ্তাহে ২০-২৫ ঘন্টা বৈধভাবে কাজ করতে পারবেন। এর বেশি কাজ করলে আপনাকে ভিসা সংক্রান্ত জটিলতায় পরতে হবে।

20. খন্ডকালীন কাজ করে টিউশন ফি সহ নিজের সকল খরচ চালানো সম্ভব?

সম্ভব নয়। টিউশন ফি এর সম্পূর্ণ টাকা দেশ থেকে নিতে হবে এবং লিভিং কস্ট প্রাথমিক পর্যায়ে ৭০ ভাগ টাকা খন্ডকালীন চাকরি করে ব্যবস্থা করতে পারবেন।

21. খন্ডকালীন কাজ পাবার জন্য সে দেশের ভাষা জানা কি জরুরী?

আপনি স্ব স্ব দেশের ভাষা না জেনেও কাজ পাবেন তবে স্ব স্ব দেশের ভাষায় কথা বলতে পারলে ভাল অয়েজেসের কাজ পেতে সহজতর করবে।

22. বাংলাদেশ থেকে ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রেডিট ট্র্যান্সফার করা যায়?

বাংলাদেশ থেকে পূর্বে কেউ কি ক্রেডিট ট্র্যান্সফার করতে পেরেছে? আমার জানামতে করে নাই। ক্রেডিট ট্র্যান্সফার করতে হলে আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট এবং শিক্ষক একচেইঞ্জ নিয়ে চুক্তিবদ্ধ সম্পর্ক থাকতে হবে এবং ক্রেডিট ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে আপনাকে সকল প্রকার টিউশন ফি দেশীও বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিশোধ করে যেতে হবে এবং একই সাথে ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফি পরিশোধ করতে হবে। এছাড়া আরও কিছু বিশেষ নিয়মকানুন রয়েছে। বাংলাদেশের পাবলিক/বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে এই ধরনের কোন প্রকার চুক্তি চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়া দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে নেই।

23. আমি কি ব্যাচেলর/মাস্টার্সে স্কোলারশিপ পাব?

প্রতিটি দেশের নিজস্ব কিছু স্কোলারশিপ স্কিম রয়েছে আপনাকে সে সকল স্কোলারশিপ স্কিম এ আবেদন করতে হবে। তবে আন্ডার গ্রেজুয়েটে স্কোলারশিপ পাওয়া কঠিন হবে। স্কোলারশিপের যোগ্যতা এক এক দেশের এক এক রকম তাই আবেদনের পূর্বে দূতাবাসের সাথে যোগাযোগ করে নিন।

24. এসএসসি পাশ সার্টিফিকেট দিয়ে কি আবেদন করা যায়?

যায় না। ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যাচেলর প্রোগ্রামে আবেদনের সর্বনিম্ন যোগ্যতা এইচএসসি পাশ।

25. ভাষা শিক্ষা কোর্সে আবেদন করতে আইইএলটিএস কি লাগবে?

লাগবে না। তবে বর্তমানে ভাষা শিক্ষা কোর্সে ভিসা হয় না।

26. ব্যাচেলর/মাস্টার্স কোর্সে আবেদনের সর্বনিম্ন কত পয়েন্ট থাকতে হবে?

ব্যাচেলর প্রোগ্রামে, সর্বনিম্ন এসএসসি ৩.০০-৩.২৫ এবং এইচএসসি ৩.০০- ৩.২৫ এবং মাস্টার্স প্রোগ্রাম্ অনার্সে সর্বনিম্ন ২.৫০- ৩.০০ আউট অব ৪.০০

27. ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএ প্রোগ্রামে ভর্তির যোগ্যতা কি কি?

বাংলাদেশে যেমন একজন ফ্রেশ অনার্স পাশ করা শিক্ষার্থী অনায়াসে এমবিএ প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারে ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কিন্তু এত সহজে এমবিএ প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়া যায় না। ইউরোপীয় ভাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএ প্রোগ্রামে ভর্তি হতে হলে আপনার অনার্স এবং মাস্টার্স ২ টি ডিগ্রী থাকতে হবে এবং ফলাফল ৩.০০ পয়েন্ট হতে হবে ৪ স্কেলে। ২-৩ বছরের চাকুরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে এবং আইএলটিএস ৬.০-৭.০ থাকতে হবে ।

28. ইউরোপীয় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলে ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা কেমন?

যদি আপনার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ব স্ব দেশের একরেডেসান থাকে তাহলে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভিসা আবেদন করলে যেভাবে বিবেচনা করা হত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে ভিসা আবেদন করলে ঠিক একিভাবে বিবেচনা করা হবে। সর্বশেষ ভিসা পাবার সম্ভাবনা আপনার ইন্টার্ভিউ এবং জমা কৃত কাগজপত্রের উপর নির্ভর করবে।

29. পাবলিক এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টিউশন ফি বছরে কত?

ইউরোপীয় পবালিক এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টিউশন ফি প্রায় একি রকম বছরে ৩০০০-৬০০০ ইউরো।

30. ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণত কত এপ্লিকেশন ফি দিতে হয়?

এপ্লিকেশন ফি এর পরিমাণ প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্র বিশেষ ভিন্ন ভিন্ন তবে সাধারণত ২০-১০০ ইউরো হয়ে থাকে।

31. ১ বছরের একোমোডেশন রিসার্ভেশন ফি কত?

যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ডোরমেটরি তে থাকার ব্যবস্থা করা হয় সেক্ষেত্রে এটি বিনামূল্যে হতে পারে অথবা ৫০-১০০ ইউরো দিতে হতে পারে। বেসরকারি একোমোডেশন রিসার্ভেশন ফি ৮০-২০০ ইউরো হবে।

32. টিউশন ফি কি ভিসা আবেদনের পূর্বে দিতে হবে?

জি টিউশন ফি ভিসা আবেদনের পূর্বে দিতে হবে। তবে হাতে গোনা কিছু বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যারা টিউশন ফি ভিসা হবার পর নিয়ে থাকে।

33. ভিসা আবেদন রিফিউসড হলে টিউশন ফি এর টাকা কি ফেরত পাব?

অবশ্যই। ৩০ কর্ম দিবসের ভিতরে আপনার টিউশন ফি এর টাকা ফেরত পাবেন। আপনি ঠিক যে ব্যাংক হিসাব থেকে পাঠিয়েছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ঐ একি ব্যাংক হিসাবে টাকা রিফান্ড করবে। কিছু ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় এক্সট্রা চার্জ হিসাবে আপনার টাকা থেকে কিছু টাকা কেটে নিতে পারে তবে সেটা ১২০০০ টাকার উপরে নয়।

34. ভিসা আবেদন পারপাসে কখন ব্যাংক হিসাবে টাকা টাকা রাখতে হবে?

ভিসা আবেদনের ৭ দিন পূর্বে রাখলেই চলবে আর ভিসা আবেদনের ফলাফল পাওয়ার আগ পর্যন্ত টাকা উঠানো যাবে না।

35. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়া দেশের ভিসা আবেদন কি বাংলাদেশ থেকে করা যাবে?

না। আপনাকে অবশ্যই পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের নিউ দিল্লি যেতে হবে।

36. ভিসা আবেদনের পর ভারতে কয়দিন থাকতে হবে?

ভিসা আবেদনের পর সাথে সাথে আপনি বাংলাদেশে চলে আসতে পারবেন। আপনার ভিসা আবেদন এপ্রুভড হলে পুনরায় ভারতে গিয়ে ভিসা সংগ্রহ করতে হবে।

37. ভিসা ইন্টার্ভিউ তে কি ধরনের প্রশ্ন জিজ্ঞেস করতে পারে?

ভিসা আবেদনের জন্য যে সকল প্রশ্ন জিজ্ঞেস করতে পারে তাঁর বিস্তারিত ভিসা আবেদন সেক্সান দেওয়া হয়েছে। এই লিংক থেকে দেখে নিন।

38. বাংলাদেশের ডিগ্রী পাস কোর্স সম্পন্ন করা শিক্ষার্থী কি ইউরোপে মাস্টার প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবে?

পারবে না।৩ বছরে পাস কোর্স দিয়ে ইউরোপীয় মাস্টার প্রোগ্রামে আবেদন করা যায় না। পাস কোর্স করা শিক্ষার্থীর ১-২ বছরে মাস্টার্স ডিগ্রী থাকতে হবে কেবল তখনি সে ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবে।

39. আইইএলটি এস ছাড়া কি ভিসা হয়?

ভিসা পবার জন্য আইইএলটিএস জরুরি নয়। জরুরি হল অনর্গল ইংরেজি তে কথা বলার স্কিল।

40. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়া তে কি ব্লক একাউন্ট দেখানো লাগে?

টাকা ব্লক দেখানো লাগে না। শুধুমাত্র নিজের ব্যাংক হিসাবে ৬৫০,০০০-৭,০০,০০০ টাকা রাখলেই হবে।

41. কোন সেসানে ভিসা হবার পসিবিলিটি বেশি থাকে?

ভিসা পসিবিলিটি সেশানে দিয়ে হয় না। ভিসা পসিবিলিটি শিক্ষার্থীর স্কিল দিয়ে হয়। আপনার ইংরেজি স্কিল সহ অন্যান্য সকল কাগজপত্র ঠিক থাকলে যে কোন সেশনে ভিসা হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

42. আমরা যারা এসএসসি/এইচএসসি এর পর ডিপ্লোমা সম্পন্ন করেছি তাঁরা কোন প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারবে?

আপনারা শুধুমাত্র ইউরোপীয় ব্যাচেলর কোর্সে আবেদন করতে পারবেন।

43. চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, এস্তোনিয়া দেশে কি ব্যারিস্টারি পরা যাবে?

যাবে না। এলএলবি অথবা এলএলএম করা যাবে।

44. ব্যাচেলর প্রভিসনাল সার্টিফিকেট দিয়ে কি ইউরোপীয় মাস্টার প্রোগ্রামে আবেদন করা যাবে?

জি যাবে। কারন ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভালভাবেই জানে যে বাংলাদেশি বিশ্ববিদ্যালয় গুলো অনেক কম কনভোকেশন এর আয়োজন করে।

45.পড়াশোনা শেষ করার পর অথবা পড়াশোনায় ব্যর্থ হলে ,আমি কি সেখানে ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে পারব? এবং ছাত্রদের জন্য কি পি আর সুবিধা রয়েছে?

আপনার ডিগ্রী সম্পন্ন হবার পর বিভিন্ন বহুজাতিক সংস্থা এবং স্থানীয় কোম্পানিতে আবেদন করতে পারবেন। কিছু কোম্পানি লোকাল ভাষার দক্ষতা চায় (সেজন্য আপনাকে তাদের ভাষা বোঝা এবং কথা বলা জানেতে হবে)।

পড়াশোনার বছর গননা সহ একটানা ৫ বছর থাকার পর আপনি পিআর এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। পিআর আবেদনের পূর্ববর্তী বছর গুলিতে নিয়মিত সোশ্যাল টেক্স প্রদান করতে হবে এর সাথে লোকাল ভাষা শিক্ষার উপর বি১ লেভেল কোর্স সার্টিফিকেট পেতে হবে।

চেক প্রজাতন্ত্রে পোস্ট স্টাডি ওয়ার্ক রিলেটেড কোন প্রকার আইনকানুন নেই। আমরা জানি যে, অন্যান্য দেশে ছাত্ররা ওয়ার্ক ভিসা তখনি পায় যখন সে এই দেশের সীকৃতিপ্রাপ্ত ডিগ্রি অর্জন করতে পারে। কিন্তু চেক প্রজাতন্ত্রে বিদেশি শিক্ষার্থীরা তাঁদের পড়াশোনা শেষ না করেও ওয়ার্ক ভিসায় চলে যেতে পারে, এইক্ষেত্রে পড়াশোনা শেষ না করার ব্যর্থতা কোন প্রকার বাঁধা সৃষ্টি করে না।

46. ইউরোপীয় মাল্টিনেসনাল কোম্পানি গুলি এভারেজ কত সেলারি প্রদান করে?

বাংলাদেশি টাকায় ১,০০,০০০ থেকে ২,০০,০০০ (স্টাডি প্রোগ্রাম শেষ করার পর যদি মাল্টিনেসনাল কোম্পানি তে চাকরি পান)

47. মাস্টার্স শেষ করার পর সেখানে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু? ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলি কি শিক্ষার্থীদের চাকরির জন্য কোন প্রকার জব ফেয়ারের আয়োজন কর?

কর্পোরেট বা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে ইউরোপে চাকরির প্রচুর সুযোগ রয়েছে। কিন্তু এ ধরনের চাকরির জন্য আপনাকে প্রমাণ করতে হবে যে, আপনার ভিতরে সৃজনশীলতার সঠিক দক্ষতা রয়েছে, কিভাবে চাপের মধ্যে কাজ করা যায় সেটি জানেন, আপনার লোকাল ভাষা দক্ষতা, আপনার অভিযোজন ক্ষমতা, আপনার ডাইভারসিটি কোয়ালিটি,আপনার এক্সট্রোবারট, আপনার ইউরোপীয় সংস্কৃতি নিয়ে ভাল জ্ঞান, আপনার বুদ্ধিমত্তা সক্ষমতা,আপনার নেতৃত্বের ক্ষমতা ইত্যাদি। এই বৈশিষ্ট্য বিশেষত যারা কর্পোরেট বা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে চান তাদের জন্য প্রয়োজনীয়। বিভিন্ন প্রকার জব ফেয়ারের মাধ্যমে আপনি ইউরোপীয় প্রতিষ্ঠানে চাকরি পেতে পারেন।

48. ইউরোপীয় দূতাবাসে ভিসা প্রসেস কত দিনের ভিতরে হয়?

আনুমানিক ৪০-৬০ দিন।

49. এডমিশন এবং ভিসা আবেদন বাবদ টোটাল কস্ট হতে পারে?

ব্লগ সেকশনের টোটাল কস্ট নিয়ে বিস্তারিত লেখা হয়েছে।

50. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় বিনামূল্যে পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে?

নেই।

51. যাদের হেপাটিটিস বি রয়েছে তাঁরা কি পড়াশোনার জন্য চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়া যেতে পারবে?

যেহেতু স্টুডেন্ট ভিসা আবেদনের জন্য কোন প্রকার মেডিক্যাল রিপোর্ট সংশ্লিষ্ট দূতাবাসে জমা দিতে হয় না সেহেতু আপনার হেপাটাইটিস বি নিয়ে চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়া যেতে পারবেন।

52. হেলথ ইনস্যুরেন্স জিনিসটা কি? এর জন্য কি টাকা দিতে হয়?

ইউরোপে থাকা অবস্থায় আপনার যাবতীয় অসুখ বিসুখের দায় দায়িত্ব ইনস্যুরেন্স কোম্পানির উপর বর্তাবে। তবে ওষুধ আপনার নিজ পকেট থেকে কিনতে হবে। ইউরোপীয় দেশে যেতে হলে আপনাকে হেলথ ইনস্যুরেন্স বা ট্র্যাভেল হেলথ ইনস্যুরেন্স করাতে হবে। ১ বছরের হেলথ ইনস্যুরেন্স করতে আপনাকে ২০,০০০-৩০,০০০ টাকা ইনস্যুরেন্স কোম্পানি কে প্রদান করতে হবে। চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়ার ক্ষেত্রে হেলথ ইনস্যুরেন্স চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়ার লোকাল কোম্পানি থেকে কিনতে হবে এবং স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি থেকে কিনে নিতে পারবেন।

53. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় ভিসা ইস্যু এবং রিজেক্সান এর সিদ্ধান্ত কারা নেয়?

স্ব স্ব দেশের ইমেগ্রেশন অফিসার বা ইন্টারিওর ডিপার্টমেন্ট। ভিসা ইস্যু এবং রিজেক্সান এর উপর ভিসা অফিসারের কোন প্রকার হাত নেই।

54. ক্লাস শুরু হওয়ার আনুমানিক কত দিনের মধ্যে ভিসা আবেদন করতে হবে?

নূন্যতম ১-২ মাস।

55. প্রাথমিক ভাবে চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় কত দিনের ভিসা ইস্যু কর?

প্রাথমিক ভাবে ১ বছরের ভিসা ইস্যু করা হয়। ১ বছর পর ভিসা পুনরায় ১ বছরের জন্য প্রলং করা যায়।

56. ধরুন আমি xyz ইউনিভার্সিটি থেকে এডমিশন এবং ভিসা পেয়েছি এখন আমি কি সে দেশে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবর্তন করতে পারব?

জি আপনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবর্তন করতে পারবেন। তবে আপনার যেই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভিসা এপ্রুভ হয়েছে এদের কাছ থেকে স্টাডি টারমিনেসান লেটার নিতে হবে, এই লেটার ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় পরিবর্তন করা যাবে না। বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয় এই লেটারের জন্য টিউসান ফি পে করতে হয়।

57. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় খন্ডকালিন চাকরি কি এভেইলেবল?

জি এভেইলেবল। তবে অয়েজেস কম, প্রতি মাসে ৮০-১০০ ঘন্টা কয়াজ করে ১৫,০০০-২০,০০০ টাকা আয় করা যাবে।

58. আমার ব্যাচেলর/মাস্টার্স কোর্স শেষ হবার পর কি বাংলাদেশে ফিরে আসতে হবে?

এটা সম্পূর্ণ আপনার ইচ্ছা। কোর্স শেষ হবার পর আপনার স্টুডেন্ট ভিসা ওয়ার্ক পারমিট বা বিজনেস পারমিটে কনভার্ট করতে পারবেন সে জন্য আপনাকে যে কোন প্রতিষ্ঠান থেকে ওয়ার্ক পারমিট নিতে হবে। সে দেশে ব্যবসায় করতে চাইলে আপনাকে ব্যবসায়ের নামে ট্রেড লাইসেন্স এবং ইনস্যুরেন্স এবং টেক্স দিতে হবে। এভাবে আপনি পড়াশোনা শেষ হবার পর ইউরোপে থেকে যেতে পারবেন।

59. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় মাসিক লিভিং কস্ট কত হতে পারে?

আপনি যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডরমেটরি তে থাকতে পারেন তাহলে মাসিক ২০,০০০ টাকার ভিতরে চলতে পারবেন।

60. প্রতিদিন কি বিশ্ববিদ্যালয়ে(ক্লাস করতে) যেতে হবে?

অবশ্যই। যদি না যান তাহলে স্টাডি থেকে অনেক দূরে সরে যাবেন এবং এর ফলাফল হবে কামলার জীবন। তাছারা ক্লাস নিয়মিতভাবে না করলে পরবর্তীতে ভিসা এক্সেটেন্সানের জন্য সমস্যায় পড়বেন।

61. আমার পারিবারিক আর্থিক অবস্থা ভাল নয়, এমতাবস্থায় আমার কি চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় সমস্ত দেশ যাওয়াটা ঠিক হবে?

মোটেও ঠিক হবে না। কারন এই দেশ গুলিতে গেলে আপনার সম্পূর্ণ পড়াশোনার খরচ দেশ থেকে প্রতি মাসে নিতে হবে।

62. তাহলে কোন দেশে যাওয়াটা ঠিক হবে?

প্রথমত আর্থিক অবস্থা খারাপ হলে ইউরোপে পড়াশোনার চিন্তা মাথা থেকে দূর করাই ভাল হবে। তারপরেও যাবার ইচ্ছা হলে স্কোলারশিপ নিয়ে যাবার চেস্টা করুন। অথবা যেখানে টিউশন ফি নেই সে সকল দেশে চেস্টা করুন যেমন জার্মানি, ফিনল্যান্ড।

63. যারা বিবাহিত তাঁরা কি স্টুডেন্ট ভিসা আবেদনের মাধ্যমে তাদের স্পাউস নিয়ে যেতে পারবে?

অবশ্যই আপনি স্পাউস সহ ভিসা আবেদন করতে পারবেন তবে আমরা সাজেস্ট করব সর্বপ্রথম আপনি শুধুমাত্র নিজের ভিসার জন্য আবেদন করুন। তারপর ঐ দেশে ৬ মাস থাকার পর আপনার স্পাউস কে নিয়ে যাবার প্রসেস করুন। এটাই সবচেয়ে নিরাপদ ওয়ে। একসাথে আবেদন করলে ভিসা এপ্রুভাল পবার সম্ভাবনা কম থাকে।

64. স্পাউসের কি ওয়ার্ক পারমিট থাকবে?

স্পাউসের কাজ করার কোন বৈধ নিয়ম নীতি নেই। সুতরাং স্পাউস খন্ডকালিন বা পূর্ণকালীন কাজ করতে পারবে না।

65. আমাকে কিছু ভাল বিশ্ববিদ্যালয়ের লিংক দেন?

ভর্তি সেকশনে প্রতিটি দেশের বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি সেখান থেকে জেনে নিন।

66. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায়র ভিসা আবেদন কিভাবে করব?

আবেদন প্রক্রিয়ার যাবতীয় বিষয় নিয়ে ভিসা আবেদন সেকশনে আলোচনা করা হয়েছে।

67. আমি আপনাদের মাধ্যমে প্রসেস করতে চাই, আমাকে ভিসা পাবার ১০০ ভাগ নিশ্চয়তা দিতে পারবেন?

ভিসা পাবার নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারবে না কারন এটা স্ব স্ব দেশের ইমেগ্রেশন বা ইন্টারিওর থেকে অনুমোদন হয়। তবে আপনি ইংরেজি তে অনর্গল কথা বলতে পারলে এবং দূতাবাসে জমা কৃত সকল কাগজপত্র ঠিক থাকলে ভিসা পাবার সম্ভবনা রয়েছে।

68. আমি বিভিন্ন দূতাবাস থেকে ভিসা আবেদন করে রিফিউসড হয়েছি, আমি কি চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় আবেদন করতে পারব, যদি পারি তাহলে আমার আগের রিফিউসালের জন্য কোন প্রকার সমস্যা হতে পারে?

জি পারবেন। পূর্বের রিফিউসালের জন্য সমস্যা হবে না। যদি আপনি পূর্বের সমস্যা গুলি সমাধান করতে পারেন।

69. ইন্টার্ভিউ ছাড়া চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায়র স্টুডেন্ট ভিসা কন্ট্রাক্ট এর মাধ্যমে করানো যায়?

যায় না। আপনাকে ইন্টার্ভিউ দিয়ে ভিসা আবেদন করতে হবে।

70. চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায়র স্টুডেন্ট ভিসা আবেদনের জন্য কি কি ডকুমেন্ট দূতাবাসে জমা দিতে হয়?

প্রতিটি দূতাবাসের নিজস্ব রিকোয়ারমেন্ট রয়েছে তবে সাধারণত যে সকল কাগজপত্র দূতাবাসে জমা দিতে হয় সেগুলো হলঃ এডমিশন লেটার, ১ বছরের একোমোডেশন সার্টিফিকেট, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট, ব্যাংক স্টেটমেন্ট/ব্যাংক সার্টিফিকেট। বিস্তারিত জানতে ভিসা আবেদন সেকশনে স্ব স্ব দেশের ভিসা আবেদনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের তালিকা দেখে নিন।

71. এইচএসসি পাশ করেছি ৬ বছর আগে, খুব ভাল ইংলিশে স্পিকিং করতে পারি। যেহেতু ভিসা নির্ভর করে ইন্টার্ভিউ এর উপর সেহেতু ভিসা পেতে স্টাডি গ্যাপ কোন প্রকার সমস্যা করবে কিনা?

যেহেতু আপনি ইংরেজিতে যথেষ্ট ফ্লুয়েন্ট সে অর্থে অবশ্যই আপনার ইন্টার্ভিউ ভাল হবে। দূতাবাস কে আপনার স্টাডি গ্যাপের জন্য ভেলিড রিসন দেখাতে হবে। যদি পারেন তাহলে ভাল ফলাফল পাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

72. নোস্ট্রিফিকেশন মানে কি একটু বুঝিয়ে বলুন?

নোস্ট্রিফিকেশন হল একটা ডিক্লারেসান, যেটা চেক ইউনিভার্সিটি অথবা চেক এজুকেসান মিনিস্ট্রি দিয়ে থাকে, এবং আপনার লাস্ট ডিগ্রি টা যে চেক ডিগ্রির সমতুল্য তার একটি ডিক্লারেসান। এটাকে নোস্ট্রিফিকেশন বলে। অর্থাৎ আপনি যদি এইচ এস সি পাশ হন, সেক্ষেত্রে চেক রিপাব্লিকে ব্যাচেলর করতে গেলে আপনার এস এস সি এবং এইচ এস সি সার্টিফিকেট কে নোস্ট্রিফাই করতে হবে এবং চেক রিপাব্লিকে মাস্টার্স করতে গেলে আপনার ব্যাচেলর সার্টিফিকেট কে নোস্ট্রিফাই করতে হবে, নোস্ট্রিফিকেশন এর মাধ্যমে প্রমাণিত হবে যে আপনার ব্যাচেলরডিগ্রি টি চেক এজুকেসান এর সমতুল্য। বিস্তারিত ব্লগ সেকশনে দেখুন।

73. পেপার ভিসা মানে কি? একটা এজেন্সি আমাকে বলল তাঁরা আমাকে পেপার ভিসা মেনেইজ করে দিবে এবং ভিসা পাব ১০০ ভাগ নিশ্চিত?

এজেন্সি হয়ত এটা বলেছে যে তারা আপনাকে ভিসা আবেদনের জন্য ইউনিভার্সিটির এডমিসান লেটার মেনেইজ করে দিবে। ইউনিভার্সিটিরর কোন ক্ষমতা নেই ভিসা করিয়ে দেবার তবে আপনি ইংরেজি তে ফ্লুয়েন্ট হলে এবং সকল ডকুমেন্ট সঠিক থাকলে ভিসা পেতে পারেন। আর ইংরেজি তে প্রফিসিয়ান্ট না হলে ইউনিভার্সিটি কেন কারো ক্ষমতা নেই আপনাকে ভিসা করিয়ে দেবার।

74. ভিসা পেতে হলে একাডেমিক রেসাল্ট কোন প্রকার প্রভাব ফেলে?

প্রভাব ফেলে না। ভিসা পেতে হলে আপনাকে ভাল একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে হবে এবার হতে পারে বিশ্ববিদ্যালয় টি পাবলিক বা বেসরকারি। তারপর ইন্টার্ভিউ পারফর্মেন্স এবং দূতাবাসের জন্য যাবতীয় কাগজপত্র।

75. ব্যাংক এর টাকা কি শিক্ষার্থীর নিজস্ব ব্যাংক হিসাবে রাখতে হবে?

এস্তোনিয়া ব্যতীত চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/স্লোভেনিয়া তে নিজস্ব ব্যাংক হিসাবে টাকা দেখাতে হবে।

76. ধরুন আমি চেক প্রজাতন্ত্র দূতাবাস থেকে আমার মূল সার্টিফিকেট সুপার লিগেলাইজ করিয়েছি। পরবর্তীতে আমি যদি চেক প্রজাতন্ত্রে আবেদন না করে অন্য দেশে আবেদন করি তখন কি ঐ দেশের বিশ্ববিদ্যালয় আমার সার্টিফিকেট থাকা চেক দূতাবাসের সিল দেখে কোন প্রকার সমস্যা করবে? তারা কি এরকম কিছু বলবে যে, তোমার ডকুমেন্টস এ অন্য দেশের দূতাবাসের সিল কেন?

এতে কোন ধরনের সমস্যা হবে না। বরং এটা আরও ভাল যে অরা বুঝবে আপনার ডকুমেন্ট অথেনটিক।

77. আমি ২০১৩ সালে এইচ.এস.সি শেষ করছি। আমার এই স্টাডি গ্যাপ নিয়ে চেক প্রজাতন্ত্র/স্লোভাকিয়া/ স্লোভেনিয়া/এস্তোনিয়ায় ভর্তি আবেদন এবং ভিসা আবেদনে কোন সমস্যা হবে কিনা?

ভিসা পাবার মূল মন্ত্র হল ইংরেজি তে অনর্গল কথা বলার দক্ষতা। স্টাডি গ্যাপ দিয়ে আপনি মোটামুটি ভাল লেভেলের বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি মিডিয়ামে ভর্তি কনফার্ম করতে পারবেন। ইউরোপীয় দূতাবাস যখন প্রশ্ন করবে এইচ এস সি পাশের পর এখন পর্যন্ত এই সময়টাতে আপনি কি করেছেন? তখন এই উত্তরে আপনাকে ভ্যালিড রিসন দেখাতে হবে। যদি ভ্যালিড রিসন দেখাতে পারেন এবং ইন্টার্ভিউ যদি ভাল হয় এর সাথে আপনার জমাকৃত কাগজপত্র ঠিক থাকলে ভিসা পাবার আশা করা যায়।

78. ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যাচেলর বা মাস্টার্স প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য কি কি কাগজপত্রের প্রয়োজন?

  • ব্যাচেলর কোর্সে ভর্তির জন্য এসএসএসি সর্বনিম্ন ৩.০০ এবং এইচএসসি সর্বনিম্ন ৩.০০ পয়েন্ট থাকতে হবে। বা ডিপ্লোমা কোর্সে ৫০ ভাগ মারক্স থাকতে হবে। মাস্টার কোর্সে ভর্তির জন্য অনার্স ফলাফল সর্বনিম্ন ২.৫০ আউট অব ৪.০০ অথবা সেকেন্ড ডিভিশন থাকতে হবে।
  • ব্যাচেলর কোর্সে ভর্তির জন্য এসএসএসি, এইচএসসি বা ডিপ্লোমার সার্টিফিকেট, মার্কস সিট, মাস্টার কোর্সে ভর্তির জন্য অনার্সের সার্টিফিকেট এবং মার্কসসিট
  • আইইএলটিএস সর্বনিম্ন ৫.৫-৭.০ চেয়ে থাকে। তবে অল্প কিছু বিশ্ববিদ্যালয় আইইএলটিএস এর পরিবর্তে আপনার ব্যাচেলর ইংরেজি মিডিয়াম অব ইন্সট্রাকশন সার্টিফিকেট গ্রহণ করে। ব্যাচেলর কোর্সে ভর্তির জন্য এই ধরনের ইংরেজি মিডিয়াম অব ইন্সট্রাকশন সার্টিফিকেট গ্রহণযোগ্য নয়। অনেকে জিজ্ঞেস করে আইইএলটিএস ছাড়া এডমিশন পাওয়া যাবে? জি আইইএলটিএস ছাড়া অল্প কিছু বিশ্ববিদ্যালয় এখনো ভর্তির সুযোগ দিচ্ছে।
  • সিভি
  • মোটিভেশন লেটার( কোথাও থেকে চুরি করে লিখবেন না আপনার এই লেটার পর্যালোচনার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব এক্সপার্ট টিম রয়েছে । সুতরাং নিজের জ্ঞান দিয়ে লেখার চেষ্টা করুণ)
  • ২ টি রিকোমেন্ডাসেন লেটার
  • স্কাইপ ইন্টার্ভিউ (কিছু বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যারা শুধুমাত্র আপনার কাগজপত্র পর্যালোচনা করে স্কাইপ ইন্টার্ভিউ ছাড়াই ভর্তির সুযোগ দেয়)
  • ভর্তি আবেদনে ফি: ২০-১০০ ইউরো পর্যন্ত।

79. আপনারা কি ইউরোপের সেঞ্জেন কোন দেশের টুরিস্ট ভিসা প্রসেস করেন?

দুঃখিত। সুবিন্দু অ্যাডভাইজর শুধুমাত্র স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে কাজ করছে।

80. আপনারা কি আমাকে স্কোলারশিপের ব্যবস্থা করে দিতে পারবেন?

চেক প্রজাতন্ত্রে স্কলারশিপ কোন বেক্তি বা প্রতিষ্ঠান ব্যবস্থা করে দিতে পারে না। আপনি চেক প্রজাতন্ত্রে ২ ভাবে স্কলারশিপ ব্যবস্থা করতে পারেন। ১। চেক গভর্নমেন্ট স্কলারশিপ যেটা আবেদন প্রক্রিয়া প্রতি বছর মে থেকে শুরু হয় (সকল ৩য় বিশ্বের নাগরিকের জন্য ) ২। আপনি যদি ব্যাচেলর সম্পন্ন করে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনার যদি কোন স্পেসিফিক এরিয়া নিয়ে নিজস্ব কোন আর্টিকেল, রিসার্চ প্রপোসাল থাকে এবং আর্টিকেল যদি ভাল জার্নালে পাব্লিশ করা থাকে তাহলে আপনি ঐ স্পেসিফিক এরিয়ার জন্য বিভিন্ন চেক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন, এতে দেখা যাবে আপনার এরিয়া রিসার্চ এর সাথে কেই না কেউ(শিক্ষক) কাজ করছে। তখন ঐ শিক্ষক আপনাকে তাঁর রিসার্চ এসিটেন্ট হিসেবে নিয়োগের জন্য স্কলারশিপ এর ব্যবস্থা করবে।

নোটঃ চেক প্রজাতন্ত্রে আন্ডার গ্র্যাজুয়েটে স্কলারশিপ পাওয়া প্রায় অসম্ভব।

81. চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, এস্তোনিয়ার স্কলারশিপ নিয়ে বিস্তারিত জানতে চাই?

প্রতি বছর মে-জুন মাসে চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, এস্তোনিয়া সরকার তৃতীয় বিশ্বের উন্নয়নশীল শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে গভারমেন্ট মাস্টার্স এবং ডক্টরাল প্রোগ্রামে স্কলারশিপ অফার করা হয়, এই স্কলারশিপে প্রগ্রামে আবেদন করতে আইইএলটিএস এর প্রয়োজন নেই, তবে আপনাকে অবশ্যই অনলাইন ইংলিশ এন্ট্রেন্স টেস্টে পাশ করতে হবে( যদি কারো আইইএলটিএস স্কোর ৭.৫ থাকে তাঁকেও এই টেস্ট দিয়ে উর্তীর্ণ হতে হবে)।

এই স্কলারশিপের জন্য কি কি ডকুমেন্ট লাগবে?

  1. স্কলারশিপের আবেদন ফর্ম যা এই লিঙ্ক থেকে ডাউনলোড করা যায়
  2. একটি স্ট্রাকচারড সিভি যেখানে আপনার একাডেমিক ক্যারিয়ার এবং চাকরির অভিজ্ঞতা কে বেশি ফোকাস করতে হবে।
  3. পাসপোর্টের স্ক্যান কপি
  4. একটি মোটিভেশন লেটার
  5. ২ টি রিকোমেন্ডেশন লেটার
  6. জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট
  7. মেডিক্যাল সার্টিফিকেট
  8. আপনার ব্যাচেলর ডিগ্রির সার্টিফিকেট এবং মারক্সসিট

নোটঃ চেক গভারমেন্ট স্কলারশিপ প্রোগ্রামের জন্য জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট, মেডিক্যাল সার্টিফিকেট , ব্যাচেলর ডিগ্রির সার্টিফিকেট এবং মারক্সসিট চেক দূতাবাস থেকে লিগেলাইজ করিয়ে আনতে হবে।

স্কলারশিপ এমাউন্টঃ

  1. চেক গভারমেন্ট স্কলারশিপ প্রোগ্রামে শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে ১৪০০০ ক্রাউন যা বাংলাদেশী টাকায় ৫১,০০০ টাকা দেওয়া হবে এবং শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি, হেলথ ইন্সুরেন সহ যাবতীয় খরচ নিজেকেই চালাতে হবে।
  2. এস্তোনিয়া গভারমেন্ট স্কলারশিপ প্রোগ্রামে শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে ৩৫০ ইউরো দেওয়া হবে এবং শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি, হেলথ ইন্সুরেন সহ যাবতীয় খরচ নিজেকেই চালাতে হবে।
  3. স্লোভাকিয়া গভারমেন্ট স্কলারশিপ প্রোগ্রামে শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে ৩৫০ ইউরো দেওয়া হবে এবং শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি, হেলথ ইন্সুরেন সহ যাবতীয় খরচ নিজেকেই চালাতে হবে।
  4. স্লোভেনিয়া গভারমেন্ট স্কলারশিপ প্রোগ্রামে শিক্ষার্থীকে প্রতি মাসে ১০০০ ইউরো দেওয়া হবে এবং শিক্ষার্থীর বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি সরকার চালাবে এবং হেলথ ইন্সুরেন সহ যাবতীয় খরচ নিজেকেই চালাতে হবে।

প্রফেসর কর্তৃক স্কলারশিপঃ

এছারা আপনি যে বিষয় নিয়ে রিসার্চ করছেন বা পূর্বে করেছেন সে রকম বিষয় নিয়ে কোন ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক যদি কাজ করে থাকে এবং তিনি ইচ্ছা করলে তাঁর রিসার্চ এসিস্টেন্ট হিসেবে আপনাকে স্কলারশিপ মেনেজ করে দিতে পারে। এর জন্য আপনার এরিয়ার প্রফেসরদের সাথে আলাপ আলোচনা করে নিতে হবে। এবং কি কি যোগ্যতার ভিত্তিতে তিনি স্কলারশিপ প্রদান করবে এটা সম্পূর্ণ তাঁর নিজস্ব বিষয়।

82.সার্টিফিকেট সত্যায়নের পর নোটারি পাবলিক করা কি বাধ্যতামূলক?

এটা সম্পূর্ণ আপনার ইচ্ছা। নোটারি করলেও সমস্যা নেই, আবার না করলেও সমস্যা নেই। তবে লো মিনিস্ট্রির সত্যায়নের জন্য আপনার সার্টিফিকেট অবশ্যই নোটারি পাবলিক করতে হবে। মনে রাখবেন নোটারি পাবলিক শুধুমাত্র ফটোকপি করাবেন মূল কপিতে নয়।

83. আমার একাডেমিক রেসাল্ট মোটামুটি ভাল আমি কি ভিসা পাব?

একাডেমিক ফলাফলের উপর ভিত্তি করে ভিসা আবেদন এপ্রুভ হয় না। ভিসা পাবার সম্ভাবনা ৪ টি বিষয়ের উপর নির্ভর করে

  • ইন্টার্ভিউ পারফর্মেন্স
  • বিশ্ববিদ্যালয়ের মান
  • কোর্সের প্রকৃতি (প্রিপেরাটরি/ল্যাংগুয়েজ প্রোগ্রাম/মেইন কোর্স) এবং
  • জমা কৃত কাগজপত্রের সত্যতা

যদি আপনার ইংরেজীতে অনর্গল কথা বলার দক্ষতা থেকে থাকে এর সাথে একটি ভাল মানের বিশ্ববিদ্যালয়ে মেইন প্রোগ্রামে ভর্তি এবং সর্বশেষ দূতাবাসে আপনার জমা দেওয়া সকল কাগজপত্র যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে ভিসা পাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

84.আপনারা বলছেন চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়ায় ভর্তি আবেদনের জন্য আইইএলটিএস এর প্রয়োজন নেই। কিন্তু ভিসা পাবার ক্ষেত্রে আইইএলটিএস বিহীন শিক্ষার্থীর জন্য আইইএলটিএস বিষয়টি কোন প্রকার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবে?

 চেক অথবা স্লোভাক দূতাবাসে আইইএলটিএস নিয়ে কোন প্রকার রিকোয়ারমেন্ট নেই এবং সুবিন্দু অ্যাডভাইজর এই পর্যন্ত যাদের ভিসা প্রসেস করেছে তাঁদের ৯০ ভাগের আইইএলটিএস ছিল না, সুবিন্দু অ্যাডভাইজর কেন ইনফেক্ট বাংলাদেশি, ইন্ডিয়ান, পাকিস্তানি, নেপালি শিক্ষার্থীরা যারা চেক ভিসা পাচ্ছে তাঁদের শতকরা ৮০ ভাগের আইইএলটিএস নেই।

এবার প্রেক্টিকালি একটি কথা বলি ভাইয়া যার আইইএলটিএস ৬-৬.৫ রয়েছে সে কেন চেক চেক প্রজাতন্ত্রে বা স্লোভাকিয়ায় আবেদন করবে বলুন (কারণ যে যাই বলুক প্রায় ৮০ ভাগ বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর উদ্দেশ্য হল ইউরোপে পড়া শেষে সেটেল্মেন্ট এবং আর্থিকভাবে লাভবান হওয়া) চেক প্রজাতন্ত্র বা স্লোভাকিয়া এমন কোণ দেশ নয় যে যেখানে শিক্ষার্থীরা ভাল পরিমাণের অর্থ আয় করতে পারবে। সে অর্থে দেখবেন যাদের আইইএলটিএস ৬-৬.৫ রয়েছে তাঁরা ফিনলান্ড, সুইডেন অথবা জার্মানি তে যেতে চায়। চেক দূতাবাস এই বিষয়টি ভাল করেই জানে যে, তাঁর দেশে ৩য় বিশ্বের এত কোয়ালিফাইড শিক্ষার্থী সচারাচর আসে না। যেটা ফিনল্যান্ড এবং জার্মান দূতাবাস ৩য় বিশ্ব থেকে খুব সহজেই ভাল যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষার্থী পায়।

এবার মূল কথায় আসি, চেক প্রজাতন্ত্রে বা স্লোভাকিয়ায় ঐসব আইইএলটিএস দিয়ে ভিসা হবে কি হবে না তা নির্ভর করে না। নির্ভর করেঃ ১। ইন্টার্ভিউ পারফর্মেন্স ২। বিশ্ববিদ্যালয়ের মান ৩। কোর্সের প্রকৃতি (প্রিপেরাটরি/ল্যাংগুয়েজ প্রোগ্রাম/মেইন কোর্স) এবং ৪। জমা কৃত কাগজপত্রের সত্যতা

যদি আপনার ইংরেজীতে অনর্গল কথা বলার দক্ষতা থেকে থাকে এর সাথে একটি ভাল মানের বিশ্ববিদ্যালয়ে মেইন প্রোগ্রামে ভর্তি এবং সর্বশেষ দূতাবাসে আপনার জমা দেওয়া সকল কাগজপত্র যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে ভিসা পাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

85. অনুগ্রহপূর্বক আমাকে একটি বিষয় সম্পর্কে পরিস্কার একটি তথ্য জানান যে, আমি চেক প্রজাতন্ত্রে বা স্লোভাকিয়ার স্টুডেন্ট ভিসা এবং পড়াশোনার জন্য সর্বমোট কত টাকা বাজেট করব? সর্বমোট শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত।

বাজেটের বিস্তারিত হিসেব নিন্মে দেওয়া হলঃ

  • ৩ টি ইউনিভার্সিটি তে আবেদন করতে এভারেজ ৩৫ ইউরো করে টোটাল ১০৫ ইউরো খরচ হবে যা বাংলাদেশি টাকায় ১০,০০০ টাকা ,
  • অফার লেটার এর হারড কপি পাবার জন্য ডি এইচ এল চারজ ৬০০০ টাকা ,
  • ১ বছরের একোমোডেসান রিসারভেসান সর্বনিম্ন ৮০০০টাকা খরচ হবে।
  • যেহেতু এম্বাসি নিউ দিল্লি তে সে ক্ষেত্রে ইন্ডিয়া ভিসা পেতে ২০০০ টাকার মত খরচ হবে।
  • ভিসা আবেদনের জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স লাগবে এটা পেতে ২০০০ টাকার মত খরচ হবে।
  • ভিসা আবেদনের জন্য ইন্ডিয়া যাওয়া আসা, এবং নিউ দিল্লি তে ১ দিনের মত থাকা বাবদ ২০,০০০ টাকা খরচ হবে।
  • চেক ভাষায় বা স্লোভাক ভাষায় পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট অনুবাদ করতে হবে যেটা করতে ৩০০০ টাকা খরচ হবে।
  • এম্বাসি তে ৩৫০০-৭০০০ টাকার মত ফি দিতে হবে।
  • ৬০-৮০ দিন পর রেসাল্ট দিবে যদি ভিসা এপ্রুভাল ইমেইল পান তাহলে আবারো ইন্ডিয়া যেতে হবে অর্থাৎ ২০,০০০ টাকা খরচ হবে ইন্ডিয়া টুর এর জন্য খরচ হবে
  • ভিসা স্টিকার লাগানোর জন্য চেক রিপাব্লিক বা স্লোভাক রিপাব্লিক থেকে ইন্সুরেন্স করতে হবে খরচ ২৫,০০০ টাকা হব
  • ভিসা পেয়ে প্লেইনের টিকেট কিনতে হবে প্লেইন ফেয়ার ৬৫,০০০ টাকার মত হবে
  • যাবার সময় থাকা খাওয়া বাবদ কমপক্ষে পকেটে ১,০০,০০০ টাকার মত নিতে হবে। ব্যাচেলর এর ক্ষেত্রে ৩ বছরে ১০,৫০০ ইউরো বা মাস্টার্সের ক্ষেত্রে ২ বছরে ইউনিভার্সিটি কে সর্বমোট ৭,০০,০০০ লক্ষ টাকা দিতে হবে (এই টাকা ইন্সটল্মেন্টে দিতে পারবেন প্রতি ৬ মাসে ১,৭০,০০০ টাকা করে)উপরের খরচগুলি যোগ করলে সর্বমোট পরিমাণ দারায়ঃ ৯,৬৪৫০০ টাকা। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এই অর্থ খরচ হবে। (থাকা খাওয়ার টাকা পার্ট টাইম কাজ করে মেনেজ করতে পারবেন সে বিধায় এর হেসেবে এখানে এড করা হয় নি।)

    এবার প্রশ্ন থাকতে পারে ভিসা পাবার পূর্বে আপনার খরচ কত হতে পারে? ভিসা পাবার পূর্বে ৫৪,৫০০ টাকা খরচ হবে।

86. আমার বর্তমান পাসপোট এর সাথে সাটিফিকেটের দুই জায়গায় অমিল আছে; এখন কি আমাকে আবার সার্টিফিকেট অনুযায়ী নতুন পাসপোর্ট করতে হবে নাকি এইধরনের ভুল সমস্যা হবে না?

  পাসপোর্টের সাথে সার্টিফিকেট এর অমিল যদি এমন হয় শুধুমাত্র ২-১ টি লেটার এদিক সেদিক হয়েছে তাহলে সমসসা নেই। যদি নামের বা জন্ম তারিখের বড় কোন অমিল থাকে তাহলে অবশ্যই পাসপোর্ট সার্টিফিকেট অনুযায়ী করতে হবে। যেমন আপনার নাম সাকিল ভুইয়া, এখন সার্টিফিকেট এ রয়েছে সাকিল ভুঁইয়া কিন্তু পাস্পোরটে রয়েছে সাকিল আহমেদ তাহলে অবশ্যই পাসপোর্ট পরিবর্তন করতে হবে এবং জন্ম তারিখের অমিল থাকলেও পাসপোর্ট পরিবর্তন করতে হবে।
মন্তব্যসমূহ

Facebook