জেনে নিন কি কি ডকুমেন্ট চেক প্রজাতন্ত্র দূতাবাসে জমা দিতে হবে

উচ্চ শিক্ষার জন্য শিক্ষার্থীকে চেক লঙ টার্ম ভিসার আবেদন করতে হবে।  ১ বছরের চেক লঙ টার্ম ভিসার জন্য আবেদন করবেন এবং ভিসা এপ্রুভড হলে দূতাবাস আপনাকে ১ বছরের প্রিন্টেড ভিসা আপনার পাসপোর্টে এটাচ করে দিবে।

নিউ দিল্লির চেক দূতাবাসের সংক্ষিপ্ত বিবরন

  • নিউ দিল্লির চেক দূতাবাসের ঠিকানা: 50-M, Niti Marg Chanakyapuri 110 021 New Delhi, India
  • ওয়েভসাইটঃ The Embassy of the Czech Republic in New Delhi
  • দূতাবাসের অফিশিয়াল ই-মেইল: consular_delhi@mzv.cz
  • ফোন নাম্বার: +91-11-2415 5200
  • ওপেনিং আওয়ারঃ সোম থেকে বৃহস্পতিবার, বেলা ৯.০০ এম থেকে ১১.০০ এম। এবং পাসপোর্ট বা ভিসা সংগ্রহের সময়   সোম থেকে বৃহস্পতিবার, বেলা ৩.৩০ পিএম থেকে ৪.০০ পিএম

স্টুডেন্ট ভিসা/লং টার্ম ভিসার আবেদন প্রক্রিয়া

  • এডমিসান পাবার সাথে সাথে সর্বপ্রথম আপনাকে নিউ দিল্লির চেক দূতাবাসের ভিসা এপয়েন্টমেন্ট পোর্টাল থেকে ভিসা আবেদনের এপয়েন্টমেন্টের তারিখ নিশ্চিত করতে হবে। মনে রাখবেন এপয়েন্টমেন্ট তারিখ ব্যতীত আপনি ভিসা আবেদন করতে পারবেন না।
  • এপয়েন্টমেন্ট পাবার পর ভিসা আবেদনের যাবতীয় কাগজপত্রের ব্যবস্থা করুণ
  • ধরুন আপনি এপয়েন্টমেন্ট পেয়েছেন মে ২২ তারিখে, আপনাকে মে ২২ তারিখ সকাল ৯.০০-১১.০০ এর ভিতরে চেক দূতাবাসে সকল কাগজপত্র সহকারে উপস্থিত থাকতে হবে, আপনি যদি কোন কারণে ১২ টায় দূতাবাসে পৌঁছান সেক্ষেত্রে দূতাবাস কখনোই আপনার ফাইল জমা নিবে না এবং আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে যে আবার এপয়েন্টমেন্ট নিয়ে আপনি যেন দূতাবাসে আসেন। পরবর্তী এপয়েন্টমেন্ট তারিখ কমপক্ষে ১-২ মাস পর পাবেন। সুতরাং এই বিষয়টি মাথায় নিবেন।
  • অনেকে এপয়েন্টমেন্ট আগে নিয়ে রাখে কিন্তু এপয়েন্টমেন্ট এর তারিখের পূর্বে সকল কাগজপত্র প্রস্তুত করতে পারে না, সেক্ষেত্রে এপয়েন্টমেন্টের তারিখ পরিবর্তন করা খুবি কঠিন কাজ হবে, পরিবর্তনের বিষয়টি সম্পূর্ণ দূতাবাসের উপর নির্ভর করবে। অনেক সময় দূতাবাস তারিখ পরিবর্তনের অনুমোদন দেয় আবার কখনো কখনো দেয় না।
  • ভিসা আবেদনের দিন ভুলবশত আপনার কাছে যদি বাধ্যতামূলক ডকুমেন্ট থেকে কোন একটি ডকুমেন্ট না থাকে সেক্ষেত্রে দূতাবাস আপনার ভিসা আবেদন গ্রহণ করবে না। আপনাকে পুনরায় নতুন এপয়েন্টমেন্ট নিয়ে পূর্বের বাদ পড়ে যাওয়া ডকুমেন্ট সহ দূতাবাসে যেতে হবে।
  • দূতাবাসে নিন্মে উল্লেখিত কাগজপত্র গুলো জমা দিন
  • কিছুক্ষণ পর আপনাকে ইন্টার্ভিউয়ের জন্য ডাকা হবে
  • ইন্টার্ভিউ শেষে আপনার ফিঙ্গারপ্রিন্ট নেওয়া হবে
  • ইন্টার্ভিউয়ের দিন অথবা এরপরের দিন আপনার পাসপোর্ট সংগ্রহ করে দেশে চলে আসুন ১ মাস পর দূতাবাস আপনাকে ফলাফল জানাবে। ফলাফল ইতিবাচক হলে আবারোও নিজে নিউ দিল্লি গিয়ে অথবা আত্মীয় স্বজনের মাধ্যমে পাসপোর্ট পাঠিয়ে ভিসা সংগ্রহ করত পারবেন
  • ভিসা আবেদন কমপক্ষে ক্লাস শুরু হবার ৪০ দিন পূর্বে করতে হবে
  • বর্তমানে চেক ভিসা প্রসেস ১ মাস সময় নেয়, আপনি ১ মাসের ভিতর ফলাফল পেয়ে যাবেন

 স্টুডেন্ট ভিসা/লং টার্ম ভিসার আবেদনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের তালিকা

  • নিজ হাতে পূরণকৃত লঙ টার্ম ভিসা আবেদন ফর্ম
  • এপয়েন্টমেন্টের প্রিন্ট কপি
  • ভিসা আবেদন ফর্মের জন্য ৪ কপি ৩.৫*৪.৫ cm সাইজের ছবি।  বেকগ্রাউন্দ অবশ্যই সাদা হবে। ছবিতে অবশ্যই আপনার ফেইস বড় দেখাতে হবে। ছবিটি কিভাবে উঠাতে বলবেন তাঁর একটি আইডিয়া দিচ্ছি। ছবির নিচের অংস টুকু আপনার গলার একটু নিচ থেকে হবে। ছবির সাইডে কোন প্রকার বোয়ারডার হবে না। ছবিতে এডিটিং কম করতে বলবেন। ছবি হতে হবে ন্যাচারাল।
  • মুল পাসপোর্ট
  • পাসপোর্টের সাদাকালো ১কপি ফটোকপি (শুধুমাত্র ইনফরমেশন পেইজ)
  • এডমিসান লেটার
  • নূন্যতম ১ বছরের জন্য একোমোডেসান সার্টিফিকেট
  • অরিজিনাল পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট
  • চেক অনুবাদিত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট (চেক ভাষায় অনুবাদের কাজ আমাদের মাধ্যমে করতে পারবেন এবং নিউ দিল্লি থেকেও পারবেন)
  • অরিজিনাল শেষ ৩ মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট(অবশ্যই স্টেটমেন্টের ব্যাংক একাউন্ট শিক্ষার্থীর নামে হতে হবে) আপনার ব্যাংক হিসাবে নূন্যতম ৫,৫০,০০০ টাকার ব্যালেন্স থাকতে হবে।
  • চেক অনুবাদিত ব্যাংক স্টেটমেন্ট
  • আপনার নিজস্ব ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডিট কার্ড

নোটঃ ট্র্যাভেল হেলথ ইনস্যুরেন্স ভিসা এপ্রুভাল পাবার পর চেক প্রজাতন্ত্রের ইনস্যুরেন্স কোম্পানি থেকে কিনতে হবে।  উপরোক্ত সকল ডকুমেন্ট আবেদন পত্র জমা দেওয়ার সময় থেকে ৯০ দিনের চেয়ে বেশি পুরানো হতে পারবে না

ভিসা এবং কনস্যুলার ফি

  • লঙ টার্ম চেক ভিসা ফি ৭০০০ রুপি (যারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় অথবা চেক একরেডেটেড বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে এই ৭০০০ রুপি মৌকুফ।
  • সুপারলিগেলাইজেসান প্রতি ডকুমেন্ট ১৭০০ রুপি
  • ভেরিফিকেসান অব ট্রান্সলেসান প্রতি পেইজ ৮০০ রুপি
মন্তব্যসমূহ

Facebook